শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৪৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ:
রামগঞ্জের করপাড়া ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী এ.কে.এম তছলিম হোসেন || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছেন আনোয়ার হোসেন খান এমপি || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জের কাঞ্চনপুরে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী সৌদি বিল্লাল || Lakshmipur Pratidin পূনরায় চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় আবুল হোসেন মিঠু || Lakshmipur Pratidin মানবতার কল্যাণে কাজ করাই আমাদের সবার মূল লক্ষ্য হওয়া উচিৎ …..ড. হাকীম মো. ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া রামগঞ্জে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শামছুল ইসলাম সুমন || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জে গৃহবধূ ধর্ষনের দায়ে পল্লী চিকিৎসক আটক || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জে পূনরায় চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় হাজী মোহাম্মদ হোসেন রানা || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জের করপাড়া ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঈনউদ্দিন মানিক || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জের চন্ডিপুরে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী বুলবুল পাইন || Lakshmipur Pratidin

রামগঞ্জে মামলা করে প্রানের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাদী ও স্বাক্ষী,প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে আসামী

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে মামলার বাদী মোঃ আলম এবং স্বাক্ষী আবু মুছা সুমন নামের দুই ভাই প্রানের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ১০ নভেম্বর রামগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করার পর থেকে হামলাকারী বড়ভাই প্রকাশ্যে ছোটভাই আলম ও আবু মুছা সুমনকে হত্যার ভয় দেখিয়ে হুমকী-ধমকী অব্যাহত রাখায় উল্টো বাদী ও স্বাক্ষী বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার জয়দেবপুর গ্রামের কালা মিঝি বাড়িতে। এদিকে থানায় মামলা দায়েরের ৪দিন পরও আসামী কামাল গ্রেফতার না হওয়ায় বাদী ও তার পরিবারের লোকজন নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বলে বাদী অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জয়দবেপুর কালা মিঝি বাড়ির মৃত কালা মিয়ার ছেলেদের দুই ভাইয়ের ৫/৬ বছরের ছোট বাচ্চাদের মধ্যে হাতাহাতি মারামারির ঘটনা ঘটে। এরই সূত্র ধরে ওই তুচ্ছঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সকালে তর্কবির্তকের এক পর্যায়ে বড় ভাই কামাল হোসেন গরু জবাইয়ের ছুরি দিয়ে ছোট ভাই আবু মুছা সুমনকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। এসময় ব্যাপক রক্তক্ষনের পর আবু মুছা সুমন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আহতবস্থায় বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালে ভর্তি থাকা অবস্থায় হামলাকারী কামাল ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে হাসপাতালে উপস্থিত হলে কৌশলে আবু মুছা সুমন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। বর্তমানে সুমন পালিয়ে অন্যত্র চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন।
এব্যাপারে বাদী ও বাড়ির লোকজন জানায়,আবু মুছা সুমনকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার ভাই আলম রামগঞ্জ থানায় মামলা করায় ঐ দিন সন্ধ্যাই কামালের পরকীয়া প্রেমিকা জয়দেবপুর মোল্লা বাড়ির মৃত বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী মমতাজ বেগম ও তার ছেলে হাবিব দেশীয় অস্ত্র নিয়ে কালা মিঝি বাড়িতে প্রবেশ করে হামলা চালায় এতে বাদীর বোন সেলিনা ও ভাগীনা শাওনকে কুপিয়ে আহত করে দ্রুত পালিয়ে যায়।
এবিষয়ে হামলাকারী কামাল হোসেনের সাথে বারবার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই হান্নান বলেন কামাল হোসেন পলাতক রয়েছে তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মূল্যবান মতামত লিখুন


© All rights reserved © 2020 Lakshmipurpratidin.com
Design & Developed BY N Host BD