শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ:
রামগঞ্জের করপাড়া ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী এ.কে.এম তছলিম হোসেন || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছেন আনোয়ার হোসেন খান এমপি || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জের কাঞ্চনপুরে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী সৌদি বিল্লাল || Lakshmipur Pratidin পূনরায় চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় আবুল হোসেন মিঠু || Lakshmipur Pratidin মানবতার কল্যাণে কাজ করাই আমাদের সবার মূল লক্ষ্য হওয়া উচিৎ …..ড. হাকীম মো. ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া রামগঞ্জে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শামছুল ইসলাম সুমন || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জে গৃহবধূ ধর্ষনের দায়ে পল্লী চিকিৎসক আটক || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জে পূনরায় চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় হাজী মোহাম্মদ হোসেন রানা || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জের করপাড়া ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঈনউদ্দিন মানিক || Lakshmipur Pratidin রামগঞ্জের চন্ডিপুরে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী বুলবুল পাইন || Lakshmipur Pratidin

রামগঞ্জে নারী শ্রমিক নিয়োগ দিতে ঘুষ নিলো চেয়ারম্যান!

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ এলজিইডি’র  আর ই আর এমপি প্রকল্পের অধীনে রাস্তার মাটি কাঁটার কাজে নারী শ্রমিক নিয়োগে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদ উল্যাহ শহীদের বিরুদ্ধে। গত ২রা জুন মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর এসংক্রান্ত একটি অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী নারী শ্রমিকরা।

অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, রাস্তায় মাটি কাঁটার কাজে ৪ বছর মেয়াদি চুক্তি ভিত্তিক উপজেলা ব্যাপী কিছু নারী শ্রমিক নিয়োগ দেওয়ার চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হলে ইছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ১৭ জন নারী শ্রমিকের কাজ থেকে বায়োডাটা ও দশ হাজার টাকা করে সংগ্রহ করে। ১০ জনকে নিয়োগ দেয় উপজেলা এলজিআরডি বাকী সাত জনকে নিয়োগ না দেওয়া টাকা ফেরত চাইলাম চেয়ারম্যান বিভিন্ন তালবাহানা করতে থাকে। উপায়ন্তর না দেখে এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।
অভিযোগকারী নারী শ্রমিকরা বলেন,চেয়ারম্যান রাস্তায় মাটি কাঁটার কাজ দিবে বলে আমাদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে কিন্তু সে টাকা ফেরত পেতে অভিযোগ করেছি।
অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান শহিদ উল্যাহ শহিদ ঘুষ নেওয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, উপজেলা এলজিআরডি অফিস আমার কাছে তালিকা চাইলে আমি ১৭ জনের তালিকা দেই ১০ জন নিয়োগ পায়। বাকী ৭ জন নিয়োগ না পাওয়া ক্ষোভে এ মিথ্যা আভিযোগ করে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসীর জাহান  বলেন, অভিযোগ পেয়েছি বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে,  তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মূল্যবান মতামত লিখুন


© All rights reserved © 2020 Lakshmipurpratidin.com
Design & Developed BY N Host BD