শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৪:৫১ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ:
রামগঞ্জে কলেজ ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে তিন কেজি গাঁজাসহ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার রামগঞ্জে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের ১৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন || lakshmipur Pratidin আবারো জেলার শ্রেষ্ট ওসি এমদাদুল হক রামগঞ্জে আওয়ামিলীগ না হয়েও নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশাকারীকে প্রতিহত করার দাবীতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সংবাদ সম্মেলন রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের ঈদ পূর্নমিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রামগঞ্জে আনোয়ার হোসেন খান এমপি’র ঈদ পূর্নমিলনী আওয়ামীলীগ নেতা এম এ মমিন পাটওয়ারীর ঈদ শুভেচ্ছা লক্ষ্মীপুরে প্রতিবন্ধী পরিবারের জমি দখলের অভিযোগ রামগঞ্জে কৃষক লীগের ৫০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত || Lakshmipurpratidin.com

রামগঞ্জে গৃহবধুকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ || LakshmipurPratidin.com

রামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ লক্ষীপুরের রামগঞ্জে ফাতেমা আক্তার নামের এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে উপজেলার মধ্য শ্রীপুর মিঝি বাড়ির তাজুল ইসলামের ছেলে আক্তার হোসেন ও তার ভাই পৌরশহরের নূর প্লাজার জুতার ব্যাবসায়ি এনায়েত উল্লাহ এর বিরুদ্ধে। গুরতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভুক্তভোগী গৃহবধূ ৩ এপ্রিল রোববার  উপজেলার কর্মরত সাংবাদিকদের কাছে এসব অভিযোগ করেন।
শুক্রবার রাত ৭.৪৫ মিনিটে উপজেলার ফতেহপুর এলাকায় ফাতেমাকে বহনকারী সিএনজি’র গতিরোধ করে এ হামলা চালিয়েছে অভিযুক্তরা। গুরুতর আহত গৃহবধু ফাতেমাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখলে শনিবার দুপুরে দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরন করেছে।

সুত্রে জানায়,রামগঞ্জ পৌর সাতারপাড়া গ্রামের গৃহবধূ ফাতেমা আক্তার প্রকাশ পরী শুক্রবার ব্যক্তিগত কাজ শেষে লক্ষীপুর জেলা শহর থেকে সিএনজি যোগে রামগঞ্জ শহরে আসার সময় ফতেহপুর নামক স্থানে পৌঁছা মাত্রই তার পথরোধ করে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এসময় গৃহবধুর চিৎকার শুনে গ্রামবাসী দ্রুত ছুটে আসলে দুস্কুতিকারীরা পালিয়ে যায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধু ফাতেমা আক্তার সাংবাদিকদের জানান,আমার সাথে রামগঞ্জ পৌরসভার নুর প্লাজার জুতা ব্যবসায়ী ও শ্রীপুর গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির এনায়েত উল্যাহর দীর্ঘ কয়েক মাস যাবত পারিবারিক ও পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। উক্ত বিরোধের সুত্রধরে এনায়েত উল্যাহর নেতৃত্বে তারই ভাই আক্তার হোসেন, স্বজন কালিকাপুর গ্রামের ফরহাদ হোসেন, শাকতলা গ্রামের মাহবুবুর রহমান সহ ৪ জনের গ্রুপ পরিকল্পিত ভাবে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে জখম করে। খবর পেয়ে পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন। এব্যাপারে জানতে বার বার যোগাযোগ করেও অভিযুক্ত কাউকে পাওয়া যায়নি।
রামগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এমদাদুল হক বলেন, এব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মূল্যবান মতামত লিখুন


© All rights reserved © 2020 Lakshmipurpratidin.com
Design & Developed BY N Host BD